1. admin@alokitobangla24.com : admin :
  2. zunaid.nomani@gmail.com : Zunaid Nomani : Zunaid Nomani
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ফেনী উন্নয়ন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাংবাদিক খলিলুর রহমানের ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত ফ্রান্স বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফেনীর সাইফুল এসএসসি ২০০২ এবং এইচএসসি২০০৪ ব্যাচ বাংলাদেশ এর উদ্যেগে সুনামগঞ্জে বানভাষীদের ত্রাণ বিতরণ পদ্মা সেতু উদ্বোধন: ঢাকা এখন দক্ষিণাঞ্চলের হাতের মুঠোয় নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে পানিবন্দী অসহায় ৪০০ পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী ও জরুরী ঔষধ দিলো আনন্দ সংঘ পুলিশ সদস্য কোরবান আলীকে চাপা দেওয়া বাস চালককে গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন স্মারক স্বর্ণমুদ্রার দাম বাড়ালো কেন্দ্রীয় ব্যাংক ২০২৩ সালে আইপিএলে ফিরছেন ডি ভিলিয়ার্স রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের ফজলি জিআই স্বীকৃতি পাবে সম্রাটকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

কয়লা ভিত্তিক নতুন ১০ বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প বাতিল করলো সরকার

আলোকিত বাংলা ২৪ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৮ জুন, ২০২১
  • ১৮৮ বার পঠিত

আলোকিত বাংলা রিপোর্ট ঃ বিদ্যুতের চাহিদা অব্যহত রাখতে ১০ টি কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র
নির্মানের কথা ছিল সরকারের। সরকারের বিশদ পরিকল্পনায় থাকা ১০টি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের সিদ্ধান্ত বাতিলের কথা জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।
এসব কেন্দ্র নির্মাণে ১০ বছর আগে পরিকল্পনা নেওয়া হলেও সময়মত এগুলো বাস্তবায়ন না হওয়াই প্রকল্প বাতিলের অন্যতম কারণ বলে উল্লেখ করেন
বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। ২৭ জুন রোববার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।

কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে বিশ্বব্যাপী পরিবেশবাদীদের উদ্বেগের বিষয়টিও সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়।

আগামী ২০ বছরের মধ্যে পরিকল্পনা অনুযায়ী ৪০ শতাংশ বিদ্যুৎ নবায়নযোগ্য উৎস থেকে উৎপাদনে সরকারের ইচ্ছার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, “বিদ্যুৎ উৎপাদনে জ্বালানির ক্ষেত্রে ব্যাপক পরিবর্তন আসছে। নতুন প্রযুক্তি, জ্বালানির দামের ওঠানামার কারণে নতুনভাবে চিন্তা করার একটা বিষয় চলে আসছে বলে জানান নসরুল হামিদ।

তিনি বলেন, ২০১০-২০১১ সালের বিদ্যুতের মাস্টারপ্ল্যানে এই বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এগুলো সময় মতো বাস্তবায়ন করা যায়নি। বাতিল করার ক্ষেত্রে সেই বিষয়টিও বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে।

প্রকল্পগুলো হচ্ছে- পটুয়াখালীর (২X৬৬০) মেগাওয়াট ক্ষমতার কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, উত্তরবঙ্গ ১২০০ মেগাওয়াট সুপার থার্মাল পাওয়ার প্ল্যান্ট, মাওয়া ৫২২ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, ঢাকার ২৮২ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, চট্টগ্রামের ২৮২ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, খুলনার ৫৬৫ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, মহেশখালীর দুটি ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, বাংলাদেশ সিঙ্গাপুর ৭০০ মেগাওয়াট আল্ট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র এবং সিপিজিসিবিএল-সুমিতোমো ১২০০ মেগাওয়াট আল্ট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র।

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, সামগ্রিক বিষয় বিবেচনায় নিয়ে সরকারের ‘ইন্টিগ্রেটেড এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার মাস্টারপ্ল্যানে’ কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ‘যৌক্তিক পর্যায়ে পুনঃনির্ধারণ’ করা প্রয়োজনতাছাড়া প্যারিস এগ্রিমেন্টে বাংলাদেশ স্বাক্ষর করায় এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় পরিবেশবান্ধব জ্বালানি থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন আমাদের জন্য অত্যাবশ্যক হয়ে পড়েছে।”
নবয়ন যোগ্য বিদ্যুতের দিকেই, অর্থাৎ সৌর বিদ্যুত থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের দিকে এগুবে সরকার, তেমনটাই আভাস দিলেন সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ আলোকিত বাংলা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD