1. admin@alokitobangla24.com : admin :
  2. zunaid.nomani@gmail.com : Zunaid Nomani : Zunaid Nomani
রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১২:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ফেনী উন্নয়ন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাংবাদিক খলিলুর রহমানের ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত ফ্রান্স বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফেনীর সাইফুল এসএসসি ২০০২ এবং এইচএসসি২০০৪ ব্যাচ বাংলাদেশ এর উদ্যেগে সুনামগঞ্জে বানভাষীদের ত্রাণ বিতরণ পদ্মা সেতু উদ্বোধন: ঢাকা এখন দক্ষিণাঞ্চলের হাতের মুঠোয় নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে পানিবন্দী অসহায় ৪০০ পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী ও জরুরী ঔষধ দিলো আনন্দ সংঘ পুলিশ সদস্য কোরবান আলীকে চাপা দেওয়া বাস চালককে গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন স্মারক স্বর্ণমুদ্রার দাম বাড়ালো কেন্দ্রীয় ব্যাংক ২০২৩ সালে আইপিএলে ফিরছেন ডি ভিলিয়ার্স রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের ফজলি জিআই স্বীকৃতি পাবে সম্রাটকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

রকমারি প্রি-অর্ডারে ২য় বেস্ট সেলার ড. মাসুম আহ্‌মেদ পাটওয়ারীর বই ‘সম্মান আমাকেই আমি’

আলোকিত বাংলা ২৪ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৬ আগস্ট, ২০২১
  • ২০০ বার পঠিত

আলোকিত বাংলা সাহিত্য ডেস্কঃ
রকমারির প্রি-অর্ডারে ২য় বেস্ট সেলার বই ‘সম্মান আমাকেই আমি’। ১১ আগস্ট পর্যন্ত চলবে বিশেষ কমিশনে বইটির প্রি অর্ডার নেওয়া। অর্ডারকারী প্রত্যেকেই পাচ্ছেন একটি কলম সম্পূর্ণ ফ্রি।

মানুষ আসলে কীসে সম্মানবোধ করে? অর্থে, শিক্ষায় নাকি নানারকম সামাজিক ক্ষমতা লাভে? এটা ব্যক্তিবিশেষ নির্ভর করে। কিন্তু প্রকৃত সম্মান নিজেকে নিজে সম্মান করা। নিজেকে যে নিজে সম্মান করতে পারে না সে অন্যদেরও সম্মান করতে পারে না। এমন একটি তাৎপর্যপূর্ণ বিষয় নিয়েই ড. মাসুম আহ্‌মেদ পাটওয়ারী লিখেছেন ‘সম্মান আমাকেই আমি’ বইটি। বইটি প্রকাশ করছে সাহিত্যদেশ। প্রচ্ছদ করেছেন দেওয়ান আতিকুর রহমান। দাম ১৭৫ টাকা।

আমাদের চারপাশে প্রচুর মানুষ রয়েছে যারা নানা ধরণের মানসিক সমস্যায় আছেন। এ সমস্যাগুলো কাউকে হয়তো খুলেও বলতে পারে না। কর্মক্ষেত্রে, পরিবারে, স্কুল কলেজে তৈরি হয় নানা সমস্যা। সেই সমস্যাগুলোই মানসিকভাবে পীড়ন তৈরি করে। এতে করে যেমন মানসিক সমস্যা সৃষ্টি হয় তেমনি বাড়তে থাকে শারীরিক সমস্যাও। ইংরেজি ভাষায় এ বিষয়ের কিছু বই বা গবেষণাপত্র পাওয়া গেলেও বাংলায় তেমন কোনো বইও নেই। যদিও মেডিক্যাল সাইন্সের অন্যতম একটি বিষয় মানসিক স্বাস্থ্য। মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে আমাদের সমাজে রয়েছে নানা ধরণের কুসংস্কার। ফলে সঠিক জ্ঞানও পাওয়া যায় না।

লেখক ড. মাসুম আহ্‌মেদ পাটওয়ারী লিখেছেন, ‘আত্মপ্রত্যয়, আত্মসম্মান, আত্মমর্যাদা, আত্মমর্যাদাবোধ, আত্মবিশ্বাস, আত্মমূল্যায়ন, আত্মগ্রহণযোগ্যতা, আত্মোপলব্ধি, আত্মানুভ‚তি, আত্মতৃপ্তি, আত্মতুষ্টি, আত্মাদর এই সবগুলো শব্দ ঘিরেই আবর্তিত সেলফ-এস্টিম। শব্দগুলোর প্রত্যেকটির পৃথক পৃথক অর্থ বিদ্যমান। যদিও খুব কাছাকাছি, কিন্তু খুব সূ² পার্থক্য রয়ে গেছে। সেলফ-এস্টিম অনুশীলন করার পাশাপাশি সেলফ-এস্টিমকে একই সাথে কাজে লাগানো প্রয়োজন। সতর্কভাবে খেয়াল রাখা প্রয়োজন সেলফ-কনফিডেন্স আর সেলফ-এস্টিম এক বিষয় না। আর এই পার্থক্য যদি বুঝতে পারা যায়, তবে সহজ হয়ে যাবে সেলফ-এস্টিম বুঝে যাওয়া। আর ঠিক তখন থেকেই নিজের মাঝে তা ধারণ করে বলে অনুভব করবে।’

এমনই বিশ্লেষণধর্মী এই বইটির শিক্ষণীয় এবং মজার বিষয় হচ্ছে যে, এটি পড়তে পড়তে পাঠকের মনে হবে যে তিনি কোনো উপন্যাস পড়ছেন। লেখার মুন্সীয়ানায় অনেক জটিল ও বিরক্তিকর বিষয়কে সহজ করে দিয়েছে। আমাদের দেশে এখনো সেই অর্থে কাউন্সেলিং সিস্টেম গড়ে ওঠেনি। ফলে এ কথা বলা যায় যে, বইটি একজন কাউন্সিলরের ভূমিকা রাখতে পারে।

আট পর্বে বিভক্ত এ বইটির একটি উল্লেখযোগ্য পর্ব চার। এ পর্বে লেখক ব্যর্থতার থেকে সফলতার হার, ব্যক্তি মূল্য, স্বতন্ত্র আত্মতৃপ্তি, আত্মসম্মানবোধ বনাম আত্মমগ্নতা/আত্মমুগ্ধতা, সেলফ-এস্টিম এবং বুলিং, সুস্থতা উন্নতির পন্থা, আবেগ এবং আবেগের প্রতিক্রিয়ার সতর্ক সচেতনতা, খুঁজে দেখুন এবং চিহ্নিত করুন, ইতিবাচকভাবে অনুভূতি প্রকাশ করা, যখন কোনো কিছু আপনাকে বিরক্ত করছে তা চিহ্নিত, প্রতিক্রিয়া দেখানোর পূর্বে চিন্তা করা, যেকোনো ধরনের মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণ, হয়তো অন্যদের সাথে যোগাযোগ রাখা, ভারসাম্য বজায় রাখার চেষ্টা, শারীরিক স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়া ইত্যাদি বিষয় নিয়ে বিশদ আলোচনা করেছেন। আত্মানুসন্ধান ও মানসিক শক্তির উদ্ভোধনে এ বইটি তুলনাহীন।
মাসুম আহ্‌মেদ পাটওয়ারীর জন্ম, বেড়ে উঠা এবং স্বপ্ন দেখার শুরু কুমিল্লায়। কুমিল্লা জিলা স্কুল এবং ভিক্টোরিয়া কলেজ হয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। তিনি ইংল্যান্ড এর টিসাইড ইউনিভার্সিটির স্কুল অব সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং থেকে পিএইচ.ডি অর্জন করেন। একই স্কুলে এনভায়রনমেন্টাল সাইন্স এবং রিসার্চ মেথডোলোজি বিষয়ে শিক্ষকতার পাশাপাশি গবেষণায় নিয়োজিত হন।

সরকারি, এনজিও, কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা, গবেষণায় অতিবাহিত মাসুম আহ্‌মেদ পাটওয়ারী’র কর্মময় জীবন। বাংলাদেশের ঝুঁকিপূর্ণ মেডিকেল বর্জ্যরে আধুনিক ব্যবস্থাপনায় রয়েছে তার গুরুত্বপূর্ণ অবদান। তার লেখা বিজ্ঞানভিত্তিক বিভিন্ন গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়েছে বিশ্বের নামকরা প্রথম সারির জার্নালে। তিনি বর্তমানে কাজ করছেন ক্যালিফোর্নিয়া স্টেইট গভর্মেন্ট-এর পরিবহন বিভাগে, পরিবেশ পরিকল্পনাবিদ হিসেবে।

মাসুম আহ্‌মেদ পাটওয়ারী পেশাদার লেখক নন। তবে বৈচিত্র্যময় কর্মজীবন এবং গবেষণার ধারাবাহিকতায় গবেষণা করেন মানবজীবনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে। নিজ আগ্রহে গবেষণার প্রাপ্ত ফল বিশ্লেষণ করে গল্পের মতো করে উপস্থাপন করে লেখা তার বিশেষ বৈশিষ্ট্য। তার প্রকাশিত প্রত্যেকটি বই একেকটি নির্দিষ্ট গবেষণা-গল্প।

‘সম্মান আমাকেই আমি’ বইটি লেখকের পঞ্চম প্রকাশিত গবেষণা-গল্প। তার অন্য প্রকাশিত গ্রন্থগুলো হচ্ছে- বার্ধক্যে বসবাস, একাত্তরের জিম্মি, প্রচ্ছন্ন কৈশোর, স্বপ্নকথা ।

বই আলোচনাটি লিখেছেন কিং সউদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ আলোকিত বাংলা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD